১১:২৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রায়পুরা উপজেলা প্রেসক্লাবে সভাপতি হারুনুর রশিদের বড় ভাই মারা গেছেন

  • নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট : ১১:৪৯:০৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ জানুয়ারী ২০২৪
  • 79

আকাশ বিডি নিউজ
রায়পুরা উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি ও আজকের পত্রিকার প্রতিনিধি হারুনূর রশিদের বড় ভাই ও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো দ্বীন ইসলাম চুন্নু ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন) (১৪ জানুয়ারি) ভোর ৫টার দিকে কিশোরগঞ্জের রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আইসিইউতে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন।
মৃত্যু কালে তার বয়স হয়েছিল ৫৫বছর। তিনি কিশোরগঞ্জ জেলার মিঠামইন উপজেলার গোপদিঘী ইউনিয়নের শরীফপুর গ্রামের হাজী আব্দুল হাই এর দ্বিতীয় ছেলে। মিঠামইন উপজেলার শাইলদিঘা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হিসেবে দীর্ঘদিন যাবত কর্মরত। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী ২ছেলে ২মেয়ে তিন ভাই দুই বোনসহ আত্মীয় অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখেগেছেন।
জানা যায়, গত কিছুদিন যাবৎ পিত্ত তলিতে পাথর রোগে ভোগছিলেন। গত বৃহস্পতিবার কিশোরগঞ্জের বেসরকারি ফিরুজা ক্লিনিকে অপারেশন করান। অপারেশনের পর থেকে স্বাস্থ্যের অবনতির হলে ওইখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে উন্নত চিকিৎসার জন্য পাঠান। শনিবার সকালে আইসিইউতে ভর্তি করান। রোববার ভোর পাঁচটায় শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন।
রোববার বাদ আসর নিজ গ্রামের বাড়িতে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

ট্যাগস :
জনপ্রিয়

রাজবাড়ী ডিবি পুলিশের অভিযানে হেরোইন সহ আটক হয়েছে মাদক কারবারি মাসুদগং

রায়পুরা উপজেলা প্রেসক্লাবে সভাপতি হারুনুর রশিদের বড় ভাই মারা গেছেন

আপডেট : ১১:৪৯:০৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ জানুয়ারী ২০২৪

আকাশ বিডি নিউজ
রায়পুরা উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি ও আজকের পত্রিকার প্রতিনিধি হারুনূর রশিদের বড় ভাই ও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো দ্বীন ইসলাম চুন্নু ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন) (১৪ জানুয়ারি) ভোর ৫টার দিকে কিশোরগঞ্জের রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আইসিইউতে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন।
মৃত্যু কালে তার বয়স হয়েছিল ৫৫বছর। তিনি কিশোরগঞ্জ জেলার মিঠামইন উপজেলার গোপদিঘী ইউনিয়নের শরীফপুর গ্রামের হাজী আব্দুল হাই এর দ্বিতীয় ছেলে। মিঠামইন উপজেলার শাইলদিঘা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হিসেবে দীর্ঘদিন যাবত কর্মরত। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী ২ছেলে ২মেয়ে তিন ভাই দুই বোনসহ আত্মীয় অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখেগেছেন।
জানা যায়, গত কিছুদিন যাবৎ পিত্ত তলিতে পাথর রোগে ভোগছিলেন। গত বৃহস্পতিবার কিশোরগঞ্জের বেসরকারি ফিরুজা ক্লিনিকে অপারেশন করান। অপারেশনের পর থেকে স্বাস্থ্যের অবনতির হলে ওইখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে উন্নত চিকিৎসার জন্য পাঠান। শনিবার সকালে আইসিইউতে ভর্তি করান। রোববার ভোর পাঁচটায় শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন।
রোববার বাদ আসর নিজ গ্রামের বাড়িতে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।